কর্তৃক সম্কলিত।

স্ শপ

শপ ।শাশ পেন রে রঃ ৮০১০০

চে

191151)9

72980010956 02195101012.

€) বিটি [২৯৮5] 2াতাকজ। ভা. টেটোসাক। বিজডাড 0১৭,

শা

১। ন্ডাক্তারী কবিরাজী উ্ভয্নবিধ চিকিৎসার রহস্াবিৎ ভিষক্‌ শ্রীযুক্ত

গণনাধুটুসেন, এষ, এ; এল, এম, এস বিষ্ভানিধি, কবিভূষণ মহাশয় লিখিয়।- €$ছন-ঞন্থিনয় নমস্কার নিবেদনম্‌__

মহাশয়ের প্রেরিত “আযুর্কেদ-শিক্ষা” ছুই খণ্ড যথাসময়ে পাইয়াস্ছি, সে জন্য আমার আস্তরিক ধন্যবাদ গ্রহণ করিবেন। আপনার গ্রন্থখানি অতি- ন্ন্দর হইয়াছে যেভাবে আরম্ত করিয়াছেন, আশাকরি সেইভাবেই সমাপ্ড করিয়া মহাশয় দেশবাশীর ধন্যবাদার্থ হইসে একখানি কুইযোগ-সংগ্রহ সাদর উপহান পাঠাইলাম বাটার মঙ্গল, মহাশযবের কুশল প্রার্থনীর |

বিনয়াবনত- শ্রীগণনাথ সেন ৬৫ নং বিডনষ্্রাট, কলিকাতা | ১১৫।০৯।

| নাটোরের স্তৃতপুর্ব রাঁজচিকিৎসক অধুনা কাশীবাসী পাগতপ্রবর প্রযুক্ত ঈশ্বরচন্দ্র সেন কবিরাজ মহাশয় লিখিয়াছেন__

আপনার প্রণীত “আয়ুব্বেদ-শিক্ষা” প্রথম দ্বিতীয় খণ্ড আমি যতদুর দেখিলাম, অতি উত্তম হইয়াছে, ইহা দ্বারা যে দেশের মহৎ উপকার সাধন হইবে, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নাই মহাশয়ের কূশল বাঞুনীয়।

প্রীঈশ্বরচন্্র সেন।

৮১ নং পাড়ের হাবেলী, বেনারেস সিটী। ১৫ই বৈশাখ, ১৩১৫ সাল।

৩। আমি অসংখ্য ধন্তবাদের সহিত কবিরাজ শ্রীযুক্ত অমৃতলাল প্রণীত “আয্মর্ধেদ-শিক্ষার” প্রাপ্তিস্বীকার করিতেছি। এই শ্রেষ্ঠ এবং বিজ্ঞ চিকিৎসকমহাশয় হিন্দুদিগের প্রাচীন চিকিৎসা-শান্ত্র প্রকাশ করিতে গিয়া এক বৃহৎ কার্ষ্ হস্তক্ষেপ করিয়াছেন। গ্রন্থকার অতি সহজ ভাষায় আমুব্বেদীয় গুপ্ত-রত্রদমুহ জনসাধারণের সমীপে উপস্থিত করিয়াছেন এই গ্রন্থে রোগের চিকিৎসা-প্রণালী, তৎ্সঙ্গে গঁধধের নির্বাচম, প্রয়োগ প্রস্ততপ্রণালী বিশ্বতর্ূপে সন্নিবেশিত হইয়াছে বর্তমান সময়ে চিকিৎসা-কার্যে রোখনির্ণয়, ওউধধনির্বাচন পথ্যাপথ্য নির্দেশ কর! চিকিৎসকের প্রধান কার্য্য | সুবিজ্ঞ কবিরাজ মহাশয় প্রত্যেক রোগ-নির্ণয়ের সহিত সেই রোগের উধধের প্রয়োগ- প্রণালী পথ্যাপখ্যের সুন্দররূপে নির্দেশ করিয়াছেন গ্রন্থকার যেরূপ নিপুণ- তার সহিত গ্রন্থ-প্রণয়ন কার্ষ্য আরস্ত করিয়াছেন, তাহাতে নিশ্চয়ই তিনি প্রশং- সার পাত্র এবং আমি নিঃসন্দেহ চিত্তে বলিতে পারি, তিনি তুল্য বিজ্ঞতাঁর সহিত গ্রন্থপ্রণনকাধ্য সমাধা করিবেন এই পুস্তকে প্রাচীন হিন্দুচিকিৎসাসন্ব- স্বীয় বহুতর আ'বশ্টকীয় বিষয় সন্নিবেশিত হওয়াতে প্রত্যেক চিকিৎসাব্যবসায়ীর হস্তে ইহার একখানি পুস্তক গাকা নিতাস্ত আবস্থাক ১২1৩৯

শ্রীবিনাশচ্ গপ্ত। পেনশন প্রাণ যঙ্সসিষ্ট্যাপ্ট সার্জন, এলাহাবাদ।

আয়ুর্বেদ-শিক্ষা।

( আগুর্ধব্দ-মতে লাক্ষণিক চিকিৎসা-গ্রন্থ | ) প্রথম খণ্ড।

[ চতুর্থ সংস্করণ ] :

কবিরাজ শ্রীঅম্তলাল গুপ্ত কবিভূষণ কর্তৃক সঙ্কলিত

১৭ নং কাশীনাগ দত্তের গলীট হইতে শ্রীবিনোদলাল গুপ্ত কর্তৃক প্রকাশিত

&ঘ00) ১77১ &,

91 21/501106 01 81151010110,

9 ৮৬ ]7&) 11011 115 50774 825981৬09১4,

যান] 135 5, ০. ঞ013ঞ111 এত গানটি & হ. হও. হস্হগিখি

7. 12704 £:74772271 01/02/7015 2201 24725 ০4106174. 1912.

মূল্য এক টাকা মাত্র!

ভূমিকা

আমুর্ধেদশান্ত্র এতই জটিল যে সংস্কৃতে প্রগাঢ় বৃযৎ্পত্তি এবং বহুকাল বিজ্ঞ চিকিৎসকের নিকট অবস্থান পূর্বক চিকিৎসা-বিষয়ক জ্ঞানলাত ব্যতীত উহার ভাবার্থ হৃদরগগম করিয়! চিকিৎসাকার্যে সফলকাম হওয়। একপ্রকার অসম্ভব এমতাবস্থায় সাধারণের পক্ষে আম্ব্বেদীয় চিকিৎসার মর্ম অবগত হওয়! সহজসাধ্য নহে,অথচ যাহার সহিত জীবন-মরণের নিত্যসন্বন্ধ; এরূপ একটী অতি প্রয়োজনীয় বিষয়ের মন্গ্রহণ সকলেরই কর্তব্য ; কিন্তু বঙ্গ- 'তাঁষায় লিখিত তদ্রপ আমুর্কেদীয় চিকিৎসাবিষয়ক সরল গ্রন্থ নাই হোযিও- প্যাখিক এলোপ্যাথিক চিকিৎসাবিষয়ক গ্রন্থসকলের মর্ম যেরূপ সহজে উপলব্ধি করিয়া টিকিৎসাকার্ষে প্রবৃত্ত হওয়া! ঘায়, আফর্কেদীয় গ্র্নকল রীতিমত অধ্যয়ন করিয়াঁও দীর্ঘকাল স্বিজ্ঞ চিকিৎসকের নিকট চিকিৎসা- বিষয়ক শিক্ষা লাভ না*করিলে, উত্তমরূপে চিকিৎসা-জ্ঞান জন্মে না, এই জন্যই আমুর্কেদমতে চিকিৎসাকার্য্যে হণ্ুক্ষেপ করিয়া অনেকে লক্ষণ অনুযায়ী উধধ নির্বাচন করিতে পারেন না, কারণ প্রাচীন মহথ্িগণ কেবল অধিকার অন্ুসারেই ওষধ নির্বাচন তাহার গুণ বর্ণনা করিয়াছেন ; কিন্তু লক্ষণানু- যায়ী চিকিৎসাবিষয়ক কোনও সহজগ্রন্থ প্রণয়ন করেন নাই এবং দুইটা, তিনটা বা ততোধিক রোগ মিলিত অথবা! একটী মূলরোগে বিবিধ মারাত্মক উপসর্গ উপস্থিত হইলে, কোন্‌ রোগের ব! উপসর্গের চিকিৎসা কোন্‌ সময়ে কিরূপ ভাবে করা কর্তব্য, তদ্বিষয়ে বিশেষ কোন উপদেশ প্রদান করেন নাই? তাহারা কেবল উষধগুলিকে জ্বর প্রভৃতি রোগের অধিকর্ধরানুসারে বিন্ততস্ত করিয়াছেন, কোন্‌ কোন্‌ অবস্থায় কোন্‌ কোন্‌ উপসর্গ বিদ্তমানে কোন্‌ ওষধটী প্রত্যক্ষ ফলপ্রদ, সে বিষয়ে যদ্দি তাঁহারা কিন্বা তাহাদিগের পরবর্তী আম্ুর্কেদ-গ্রন্থকারগণ বিশেষভাবে উপদেশ প্রদান করিতেন ? তাহা হইলে বর্তমান সময়ে আফুর্ধেদের উপর জন সাধারণের যেরূপ শ্রদ্ধা) তদ- পেক্গ। অধিকতর শ্রদ্ধা প্রকাশ পাইত, সন্দেহ নাই। .. দৃষ্ান্বস্থলে এলোপ্যাথিক হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসার উন্নতির উল্লেখ. করা যাইতে পারে। কেহ কেহ বলিতে পারেন/ এলোপ্যাথিক চিকিৎসা

(৪)

রাজ-চিকিৎসা, সুতরাং রাজার সাহায্যে উহার এত উন্নতি; কিন্তু এলো- প্যাথিক চিকিৎসার কথ ছাড়িয়া দিলেও হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসার এই অল্পকালের মধ্যে যে কতই উন্নতি হইয়াছে, তাহ তাবিলে আশ্চর্য্যান্বিত হইতে হয়ঃ সম্বন্ধে অনুসন্ধান করিলে অন্যান্ত কারণের মধ্যে বাঙ্গালা ভাষায় সরল চিকিৎসা-বিষয়ক গ্রন্থের বহু প্রচলনই এদেশে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসাবিস্তারের একটি প্রধান কারণ বলিয়া অনুমিত হইবে | অনেকে মনে- করেন যে, আমুর্কেদীয় সংস্কত গ্রন্থে যাহা আছে, তাহাই যথেষ্ট ; উহার সংস্কার বা বঙ্গানুবাদ করিবার কোনও প্রয়োজন নাই ; কিন্তু ছুঃখের বিষয় "ঠাহাব্রা এটা বুঝিয়া দেখেন না যে, বিজ্ঞচিকিৎসক বঙ্গের সর্ধন্তর সহজ প্রাপ্য নহে এবং যাহাতে সাধারণের জীবন মরণের নিত্য সন্বন্ধ বিচ্যমান রহিয়াছে, সেই বিষয়ের সাধারণ জ্ঞান সর্ধ সাধারণের মধ্যেই প্রচারিত হওয়া কর্তব্য আরও একটি দুঃখের বিষয় এই যে, পাশ্চাত্যদেশে বনুদর্শী চিকিৎসকগণের বহুদর্শনের ফলস্বরূপ যেরূপ মেভিকেলজার্ণাল বা চিকিৎসাবিষয়ক পন্রিক৷ প্রকাশিত হয়, আমাদের দেশের বিজ্ঞ চিকিৎসকগণ সে বিষয়ে একেবারেই উদ্বাসীন, তাহারা আজীবন চিকিৎসা এবং ওষধের "গুণাগুণ সম্বন্ধ যতট,কু অভিজ্ঞতা অঞ্জন করেন, '্টাহাদের অন্তর্ধানের সঙ্গে সঙ্গেই তৎ্সমস্ত বিলুপ্ত হয় ; ইহা, কি কম ছুঃখের কথা ?

আমাদের যা কিছু ছিল, এইরূপ ভাবেই তাহা বিলুপ্ত হইয়াছে এবং বর্তমানে যদি এবিষয়ে হস্তক্ষেপ না করা যায়, তবে এখনও যাহা কিছু আছে, তাহাও হয়ত কালের প্রভাবে তবিষ্যতে বিলুপ্ত হইতে পারে, এই আশঙ্কায় দ্বীর্ঘকাল যাবৎ চিকিৎসাকার্ষো ব্যাপূত থাকিয়া ওষধ চিকিৎসা সন্বন্ধে ষে সামান্ত অভিজ্ঞতা! জন্মিয়াছে, তাহাও দেশের জন সাধারণের মধ্যে প্রচারের উদ্দেপগ্তে এই গ্রন্থে লিপিবদ্ধ করিয়াছি এবং এইজগ্যই “আযুর্ধেদ-শিক্ষা” নামক এই অভিনব গ্রন্থের স্ষ্টি ; হোমিওপ্যাথিক গ্রন্থদৃষ্টে যেরূপ সহজে বধ ব্যবস্থা! করা যায়, এই গ্রন্থখানি দৃষ্টে সাধারণে তত্রপ এবধ প্রপ্োগ করিতে পারিবেন, এই আশা হৃদয়ে পোষণ করিয়া এই কার্যে হস্তক্ষেপ করিয়াছি কিন্তু কতদূর রুতকার্য্য হইয়াছি, তাহার বিচারের ভার সুধীগণের হস্তে অর্পণ করিলাম। উপসংহারে এতদেশীয় বিজ্ঞ চিকিৎসকগণের নিকট নিবেদন এই-_তীহারা স্ব স্ব চিকিৎসাবিষয়ক জ্ঞানলব্ধ ফল পুস্তকাঁকারে প্রচার করিলে দেশের একট প্রধান জতাব দূরীভূত হইধে।

(৫)

পরিশেষে উপসংহারে বক্তব্য এই-্রন্থের কোন স্থানে ভ্রম প্রমাদ ৃষ্ট হইলে এবং আমাকে তাহা জানাইলে, পুনঃ সংস্করণে সংশোধন পূর্ব্বক গ্রন্থ মুদ্রিত করিব

জ্রীঅস্বত লাল গুপ্ত

গ্রন্থের আলোচ্য বিষয়

এই গ্রচ্চে প্রত্যেক রোগের নিদানান্ুযায়ী লক্ষণসকল সরলতাবে বিস্তারিত- রূপে বর্ণিত হইয়াছে

রোশের বাহিক আভ্যান্তরিক লক্ষণান্ুপারে এবং বায়ু, পিত্ত শ্লেম্মার এতিভেদে কোন্সমড্জে কোন্‌ গঁধধ প্রয়োগ করিতে হয় এবং অবস্থাবিশেষে প্রলেপ বস্তি প্রভৃতি ব্যবহারের নিয়ম সকল বিস্তারিতর্ূপে সন্লিবদ্ধ হইয়াছে।

বাস, পিত্ত শ্রেম্ার গতিভেদে এবং বাহক লক্ষণান্ছসারে অথবা ২। ৩টী রোগ মিলিত হইলে যে সকল অন্ুপানে ওঁষধ প্রয়োগ করিতে হয়, সেই সকল সহজপ্রাপ্য অন্ুপান ওষধের স্ঙে পরিব্যক্ত হইয়াছে

একটা রোগ উৎপন্ন হইলে, তাহার উপত্রবস্বর্ূপ অন্য যে সমস্ত উৎ্কট রোগ উপস্থিত হয়; এই গ্রন্থে সেই সমস্ত উপদ্রবের চিকিৎসাবিধি ওষধসকল প্রদত্ত হইয়াছে

চিকিৎসাবিধির মধ্যে প্রত্যেক রোগের উৎপত্তির কারণ এবং যন্ত্রাদির বিকৃতিবশতঃ রোগসমূহ কিরূপে উৎপন্ন হয়, তদ্বিষয়ক সংপ্রাপ্তি যথাসাধ্য পরিষ্কাররূপে বর্ধিত হইয়াছে

রোগসমহের কোন্‌ অবস্থায় অর্থাৎ মুখ্যরোগের সঙ্গে ২৩ বা ৪টী রোগ মিলিত হইলে এবং রোগের নূতন পুরাতন অবস্থায় অথবা বাত 'পিভাদি- তেদে কিরূপ ওষধ প্রয়োগ আবশ্তক, চিকিৎসাবিধির মধ্যে তাহার উল্লেখ করা হইয়াছে এবং প্রত্যেক অবস্থায় ৩1৪টী ওঁবশ, নির্বাচন কিয়! বুঝাইয়া দেওয়া হইয়াছে

(৬)

ব্যবস্থিত গধধের নিয়মেই তাহার প্রস্তুত প্রণালী উপকরণের তালিক৷ সন্নিবিষ্ট হইয়াছে প্রত্যেক রোগের অবস্থাভেদে সহজলত্য পথ্য সকল সন্িবিষ্ট করা হইয়াছে ষধসমৃহ প্রস্তত করিতে হইলে স্বর্ণ, রৌপ্য প্রভৃতি ধাতুদ্রব্য এবং বিষ, উপবিষ উদ্ভিজজাদির প্রায়শঃ আবশ্তকতা৷ হয়, স্ুতরাং'উহাদের শোধন জারণ মারণের সহজপ্রণালী বিস্তারিতরূপে বর্ণিত হইয়াছে একটী গুঁষধ প্রস্তুত করিতে হইলে, এবং তন্মধ্যে কোনও দ্রব্য হুশ্রাপ্য হইলে, তৎপরিবর্তে তদৃগুণবিশিষ্ট কোন্‌ দ্রব্য প্রদ্দান কর! কর্তব্য, তাহা! পরি- ভাষা নামক অংশে সন্নিবদ্ধ হইয়াছে তৈল, ঘ্বতঃ মোদক অবলেহ প্রভৃতির প্রস্তত প্রণালী সহজে ষাহাতে হৃদয়ঙগম হয়, এরূপ ভাবে বুঝাইয়। দেওয়া হইয়াছে মৃচ্ছা, কাথ কন্ক- দ্রব্যাদ্রির পাকের নিয়ম পরিব্যক্ত হইয়াছে রোগীব অবস্থাতেদে ভিন্ন তিন্ন পথ্যাদির আবশ্ঠকৃতা বশতঃ মস্থরযুষ, মুগেরযুষ, মণ্ড, মাংসযুষ উদ্ঞোদক প্রভৃতির প্ররস্ততপ্রণাঁলীর উল্লেখ কর! হইরাছে। এই গ্রন্থে যে সকল ওষধ সন্নিবদ্ধ হইয়াছে, তাহা! আমাদের বহু পরীক্ষিত সুতরাং সকল ওধধ প্রয়োগ করিবার সময়ে উধধগুলি অপরীক্ষিত বলিয়! কাহারও সন্দেহ কবিবার কোনও কারণ নাই। শীন্ত্রে যেরূপ মাত্রার উল্লেখ আছে, তদ্রপ মাত্রায় আজ কাল ওঁষধ প্রয়োগ করা হয় না আমরা সচরাচর যে মাত্রায় উষধ প্রয়োগ করিয়া! থাকি, ইহাতে সেইরূপ মাত্র! লিখিত হইয়াছে যে সকল গধধের প্রয়োগ কলিকাতা বা পশ্চিমবঙ্গে দৃষ্ট হয় না, এই গ্রন্থে সেইরূপ অনেক ওধধ সন্নিবিষ্ট হইয়াছে, সকল ওঁষধের প্রয়োগপ্রণালী বিশেষতঃ অরবিকার-চিকিৎসা! পূর্ববঙ্গ হইতে সম্কলিত হইয়াছে

.. গ্রন্থবিশেষে কোনও ওষধে দ্রব্যের পর্পিমাণের বিভিন্নতা লক্ষিত হয়, কিন্তু দীর্ঘকাল যাবৎ ওষধ প্রস্ততকালে যে যে দ্রব্য যে পরিমাণে গ্রহণ করা হইয়াছে, তাহাই এই গ্রন্থে লিপিবদ্ধ করিয়াছি

:. ব্যবসায়ের অন্থরোধে অনেকে বিষ, উপবিষ, ধাতু উপধাতু প্রতৃতি

দ্রব্যের শোধন জারণ মারণের সহজ প্রণ।লী এবং ওষধ প্রয়োগ প্রস্তুতের

(৭)

সহজ প্রণালী সাধারণের নিকট ব্যক্ত করেন না, কিন্তু আমি এই গ্রন্থ প্রত্যেক বিষয় সরলতাবে ব্যক্ত করিয়াছি, কিছুই গোপন করি নাই

সতকীকরণ

“আঘুব্বেদ-শিক্ষণ” সম্পূর্ণ নূতন ধরণের গ্রন্থ এইরূপ গ্রন্ ইতঃপুর্বে আর কখনও খুদ্রিত হয় নাই; সুতরাং আইনান্মুসারে ইহা যুদ্রিত করিতে কেবলমাত্র আমিই সম্পূর্ণ অধিকারী এই অবস্থার যদি কেহ ইহার নকল বা কোনও

অংশবিশেষ মুদ্রিত করেন, তবে তিনি আইনের আমলে আসিবেন।

দ্বিতীয় সংস্করণের বিজ্ঞাপনী |

প্রথম্খণ্ড “আযুর্ধেদ-শিক্ষার” দ্বিতীয় সংস্করণ মুদ্রিত প্রচারিত হইল। বিগত ১৯০৭ ্রীষ্টাবেন প্রবল স্বদেশী আন্দোলনের সময় আমি প্রথমতঃ এই গ্রন্থ শালধিতে প্রবৃত্ত হই এবং এর অবের শেষেই প্রথমখণ্ড মুদ্রিত হইয়া প্রচারিত হয়; সুতরাং এই অগল্নকালের মধ্যেই প্রথম সংস্করণের সমস্ত পুস্তক নিঃশেষিত হওয়া আমার পঙ্ষে সামান্য সন্তোষের কারণ নহে।

চিকিৎ্সা-বিষয়ক গ্রস্থদকল মাতৃভাষার মুদ্রিত হওয়াই বাঞশীয়। কিন্ত্ত আমুর্ধেদীয়-গরন্থ এররূপভাবে একখানিও এযাবৎ প্রকাশিত হয় নাই, স্বতরাং বলিতে গেলে বিষয়ে “আমুক্বেদ-শিক্ষা”্ই প্রথম গ্রন্থ। এই গ্রন্থ প্রচারের উদ্দেপ্ত সফল হইবে কিনা, তৎ্সন্বন্ধে বিবেচনা করিবার অবসর আমি কখনও পাই নাই, কারণ স্বদ্দেশী আন্দোলনহ আমাকে এই কার্ষ্য প্রবৃত্ত করাইয়াছে।

স্বদেশী আন্দোলনের ফলে পৃর্ববীপেক্ষা বর্তমানে আমাদিগের আত্মনির্ভর- শীলত। কার্য্যকরী ক্ষমতা যে বৃদ্ধি পাইয়াছে, এই গ্রস্থই তাহার প্ররকুষ্ট উদা- হরণ; কারণ স্বদেশী আন্দোলনে প্রবুদ্ধ না হইলে, অন্য সময়ে আমি এইরূপ দুঃসাহসিক কার্ষ্যে হস্তক্ষেপ করিতে সাহসী হইতাম কি না সন্দেহ

হোমিওপ্যাথিকের ন্যায় আযুর্ধেদীয় সরল চিকিৎসা-গ্রন্থ প্রচারিত হয় এবং জন সাধারণ উহা দৃষ্টে আযুর্ক্েদের মর্ঘ্ম অন্ত হইয়া সহজে, চিকিৎসা

(৮)

করিতে পারেন, এই উদ্দেশ্তের বশবর্তী হইয়া আমি এই গ্রন্থের লিখন- কার্ষ্যে প্রবৃত্ত হইয়াছি ; কিন্তু আশ ফলবতী হইবে কি না জানি না, ষদি হয়, মানবজন্ম সার্থক জ্ঞান করিব

প্রথমতঃ যখন এই ছুরহ কার্ষ্যে প্রবৃত্ত হই, তখন চিকিৎসকমণ্লী এই গ্রন্থের জন্য এতাদৃশ আগ্রহাতিশয় প্রকাশ. করিবেন, এবং ইহার মুদ্রণকাধ্য্য এতদূর অগ্রসর হইবে? এরূপ আশ! ছিল না" এখন বুঝিতে পারিতেছি, ইহা একমাত্র ভগবানের দয়া

পরিশেষে বক্তব্য এই-_এই গ্রন্থদ্বার৷ সাধারণের বিশেষ উপকার হওয়ার সম্ভাবনা আছে কি না, তাহা ভবিষ্যতের গভে নিহিত; তবে প্রথমখণ্ড দ্বিতীয় খণ্ড দর্শনে অন্যান্য খগ্ুগুলি প্রাপ্তির জন্ত জনসাধারণ যেরূপ অধীর হইয্বাছেন এবং চিকিৎ্সকমণ্লী উহা দৃষ্টে যেরূপ উচ্চ অভিমত প্রকাশ করি- য়াছেন, তাহাতে মনে হয়ঃ কিঞ্চিৎ উপকার হইলেও হইতে পারে।

তৃতীয় সংস্করণের বিজ্ঞাপনী

প্রথম খণ্ড “আমুক্েদ-শিক্ষা”্র তৃতীয় সংস্করণ প্রকাশিত হইল। এত অল্লকালের মধ্যে দ্বিতীয় সংস্করণ নিঃশেষিত হওয়া আমার পক্ষে পরম সৌভাগ্যের বিষয় সন্দেহ নাই। ইহা! দ্বারা এই গ্রন্থ যে জনসাধারণের আদরের বস্ত হইয়াছে এবং আমুর্দেদের উপর দিন দিন যে তাহাদের অন্থরাগ বৃদ্ধি পাইতেছে, তাহারও প্রমাণ পাওয়। যায়

হের

চতুর্থ সংস্করণের বিজ্ঞাপনী

আঘুর্বেদ-শিক্ষা প্রথম খণ্ডের তৃতীয় সংস্করণ নিঃশেষিত হওয়ায় চতুর্থ

সংস্করণ মুদ্রিত হইগ। শ্রীতম্বতলাল গুপ্ত

১৭ নং কাশীনাথ দের স্্ীট, নিমতলা ; কলিকাতা

(৯)

মতান্তরে স্বর্ণসিন্দুর বা মকরধবজ প্রস্তুত করণ।

্বর্ণসিন্দুর বা মকরধ্বজ প্ররস্তত সম্বন্ধে শাস্ত্রে মতান্তর দৃষ্ট হয়। আমরা যে মত এই গ্রন্থে লিপিবদ্ধ করিয়াছি, উহাই সহজ, চারি প্রহরে প্রস্তত হয়। প্রত্যুষে ছয়টার সময় চড়াইলে সন্ধ্যা ছয়টার সময় বা একটু অগ্রপশ্চাৎ উহার পাক শেষ হয়! এই নিয়মে যকরধ্বজ পাক করিতে হইলে, একখণ্ড খড়ীদ্বারা বোতলের মুখ রুদ্ধ করিতে হয়, তৎ্পরে বোতলের মধ্যস্থ কজ্জলী যখন গলিতে আরম্ত হয়, তখনই খড়ী আপনি উঠিয়া যায়, কিন্তু আবাল মু হইলে আপনি উঠিয়া যায় না, খড়ী খুলিয়৷ ফেলিতে হয় ; তখন দেখা যায় কজ্জলী গলিয়া বোতলের গলায় সংলগ্র হইয়াছে সেই জন্য বোতলের মুখ রুদ্ধপ্রায় হইয়াছেং তখন একটি লৌহশলাকা (হুকারশল1) আগুণে পোড়াইঘ্া বোতলের গল। পরিষ্কার করিয়া! দিতে হয়, মধ্যে যধ্যে এইরূপ করিলেই চারি প্রহরে ব। বারো ঘণ্টারই উহার পাক সমাধা হয়, এই সহজ মতই আমরা এই গ্রন্থে লিখিয়াছি, কিন্ত এতত্ব্যতীত আরও তিন প্রকারে মকরধ্বজ পাক কর! যাঁয়। * ১। আট প্রহরে বা এক দিন এক রান্িতে পাক ২। বারে প্রহরে বা ছুই দিন এক রান্রিতে পাক। ৩। ষোল প্রহরে ব৷ দুইদিন ছই রাত্রিতে পাক। এই তিন প্রকার মকরধ্বজ পাক করা অত্যন্ত কঠিন, ইহাতে যেমন অর্থব্যয়, তেমনি পরিশ্রম, তাহার পর যার জন্ত এত অর্থব্যয় পরিশ্রম- স্বীকার তাহা! প্রস্তুত হইবে কি না তাহারও কোনই স্থিরতা নাই, কারণ সাধারণ মকরধ্বজের প্রস্ততপ্রণালী আমরা যাহা লিখিয়াছি, তাহাতে বোতলের মুখের ছিপি উঠাইয়া ফেলিতে হয়, সুতরাং বোতলের মধ্যে অনায়াসে দৃষ্টি নিক্ষেপ করা যায় পাক নিষ্পন্ হইল কি না অনায়াসে বুঝিতে পারা যায়; কিন্তু এই তিন প্রকারে মকরধ্বজ পাক করিতে হইলে এমন ভাবে বোতলের মুখ রুদ্ধ করিতে হয়, যেন কোনও প্রকারে ছিপি উঠিয়া যাইতে না পারে; সুতরাং পাক সমাধা হইল কি না তাহা বুঝিবার কোনও উপায় থাকে না; কেবল নির্দিষ্ট নিয়মে জাল দিয় হাড়ী নামাইতে হর। বিশেষতঃ উহাতে বোতলের মুখ রুদ্ধ থাকে বলিয়া সময় সমশ্ব বোত- লের ছিপি উঠিয়। যাইতে দেখা যায় বা ছিপি উঠিতে ন। পারিলে বোতল কিঞ্চিৎ উপরে উঠিয়া পড়ে অথবা বোতল ফাটিয়া যায়, কারণ ন্মুখ রুদ্ধ

(১০)

থাকায় বোতলের মধ্যস্থ ধূম নির্গত হইতে পারে না। এই সকল কারণে নিয়মে তিন চারি বার মকরধ্বজ পাকের চেষ্টা করিয়াও একবার কৃতকার্য হওয়া কঠিন। কিন্তু বোতলের মুখ খোলা থাকিলে, সকল অন্থুবিধা কিছু- মাত্র তোগ করিতে হয় না অথচ পাক সন্বন্ধে স্থির নিশ্চয় হওয়া বায়, এই জন্যই আমর] সহজ মত লিপিবদ্ধ করিয়াছি এতদ্বাতীত আরও ছুই প্রকার মকরধ্বজ আছে, বথা-বড়গুণ-বলিজারিত মকরধ্বজ সিদ্ধ মকরধ্বজ, ইহাদের পাকের বিধান নিয়ে দ্রষ্টব্য

ষড়গুণ-বলিজারিত মকরধবজ | একটি বানুকাপূর্ণ হাড়ীর মধ্যে একটি মাটার পাত্র রাখিয়! চুল্লীর উপর স্থাপন করিবে, তৎপরে ঘে পরিমাণ পারদ দ্বারা মকরধ্বজ প্রস্তত করিতে হহবে, সেহ প্রমাণে পারদের সমান গন্ধকচুর্ণ উক্ত মাটির পাত্রে প্রদান কারবে এবং উহা গলিয়া তৈলের গ্ঠায় হইলে তাহাতে সেই পারদ নিক্ষেপ করিবে এইবপে ক্রমশঃ পারদের ছয়- গুণ গন্ধক দেওয়া হইলে তাহা হইতে ধৃযনির্গম 'ব্রহিত হইয়া আসিলে হাড়ী নামাইর়। পারদ বাহির করিয়া লইবে। এইরূপে শোধিত পারদ আট তোলা স্বর্ণের হুক্ম পাত এক তোলা একত্র মর্দন পৃর্বক উহার পহিত আট তোলা! গন্ধক মিশ্রিত করিয়া কম্জলীকরত ন্বর্ণসিন্দুরের ন্যায় চারি প্রহর পাক করিবে

সিদ্ধমকরধ্ৰজ | . বিশুদ্ধ পারদ তোল! বিশুদ্ধ স্বর্ণের প্্পাশ তোল! একত্র মর্দন পূর্বক মিশ্রিত হইলে তাহার সহিত বিশ্তুদ্ধ গন্ধক ১৬ তোল মিশাইয়! আটপ্রহর ঘর্দন করতঃ কজ্জলী করিবে, তৎপরে শ্বেত অক্ষোট অর্থাৎ ধলা আীকডা ফলের রস, রক্তকার্পাস ফুলের রস দ্বতকুমারীর রস দ্বারা কজ্জলী পৃথক্‌ পৃথক্‌ মদ্দিন করিয়া শুষ্ক করিবে, পশ্চাৎ বোতলের মধ্যে স্থাপন করিয়া মকরধ্বজের ন্যায় চারি প্রহর পাক করিবে পাক শেষ হইলে নামাইয়! স্বর্ণ সিন্দুর গ্রহণ করিবে এই স্বর্ণসিন্দুরের সহিত পুনর্ধার দ্বিগুণ পন্ধক মিশিত করিয়া! কজ্জলীকরতঃ পূর্বোক্ত তিনটি দ্রব্যের রসে মর্দন পূর্বক শুষ্ক করিবে বোতলের মধ্যে স্থাপন পূর্বক পুনর্ধার চারিপ্রহর পাক করিঝে। এইরূপে আরও একবার পাক করিলে সিদ্ধমকরধবজ প্রস্তুত হয়।

সূচীপত্র

2

(প্রথম খণ্ড ।)

বিষয়,

তিন প্রকার মকরধ্বজ ( ভূমিকা! ) ১০ তাঁম্রের অমৃতীকরণ

ধড়গুণ বলিজাবিত মকরধবজ সিদ্ধমক রর

পরিভাষা-প্রকরণ

পারদ শোধনবিধি হিস্থলোথ পারদ বিধি গ্ধকশোধনবিধি কজ্জলীক রণবিধি হিঙ্গুলশোধনবিধি রসসিন্দুর প্রস্ততবি ধি স্ণসন্দ্র প্রস্ততাবিধি অভ্রশোধনবিধি অভ্রতন্মবিধি লৌহশোধনবিধি লৌহতন্মবিধি

মণ্ডুর শোধনবিধি মও্ুরতস্মবিধি বঙ্গশোধন বাধ বঙ্গতস্মবিধি সীসকশোধনবিধি সীসকভস্মবিধি তাত্শোধনবিধি

পৃষ্ঠা বিষয়

তাত্ভন্মবিধি

* . পিত্তল কাংস্ত শোধন[(বধি

পিত্তল কাংস্য ভন্য বিধি ধর্পরশোধনবিধি

১: ধর্পর তক্মবিধি

”। রৌপ্যশোধনবিধি

| রৌপ্য ভন্মবিধি

*. স্বর্ণশোধনবিধি

স্বর্ণতন্মবিধি

স্বর্ণমাক্ষিকশোধনবিধি

স্বর্ণমাক্ষিকভম্ম বিধি

রৌপ্যমাক্ষিক শোধনবিধি

রৌপ্যমাক্ষিক তস্মবিধি

| পিগুহরিতাল শোধনবিধি

: বংশপত্রহরিতাল শোধনবিধি

হরিতাল তন্মবিধি

1 রসমাণিক্য প্রস্ততবিধি

| গোদস্তহবিতাল শোধনবিধি

| মনঃশিলাশোধনবিধি

সিটি ত্টী

পাশা আপ শপ শশা শা পপ শী পাপী সপ পপ পোপ

চন চক

| দ্রারুমুজশোধনবিধি

; সোহাগ শোধনবিধি

*:” 1 কড়িশোধনবিধি

বিষয় কড়িভন্মবিধি মৌক্তিকশুক্তি জলশুক্তি-

শোধনবিধি মৌক্তিকপুক্তি জলশুক্তি-

ভম্মবিধি শঙ্খশোধনবিধি শঙ্খভম্মবিধি সমুদ্রফেনশোধনবিধি সৌরাষ্ট্র মৃত্তিকা শোধনবিধি গৈরিক শোধনবিধি রসাগ্ুন শোধনবিধি হিরাকস শোধনবিধি তুথকশোধনবিধি করুষ্ঠশোধনবিধি স্ষটিকশোধনবিধি নিশাদলশোধনবিধি যবক্ষার প্রস্ততবিধি যবক্ষার শোধনবিধি হীরকশোধনবিধি হীরকতস্মবিধি মুক্তা প্রবাল শোধনবিধি মুক্তা প্রবাল তস্মবিধি বৈক্রান্ত শোধন ভন্মবিধি বিবিধরত্ব শোধনবিধি বিবিধবত্ব ভন্মবিধি উপরত্ব শোধন ভম্মবিধি রাজপট্ শোধন তন্মবিধি . শিলাজতুশোধনবিধি নখীশোধর্নবিধি

১১ বিষশোধনবিধি কষ্ণসর্পবিষ শোধনবিধি ১২ জৈপালবীজ শোধনবিধি ুস্ত;রবীজশোধনবিধি সিদ্ধিবীজ সিদ্ধিশোধনবিধি : লাঙ্গলীবিষশোধনবিধি ”» ' বৃদ্ধদারকবীজশোধনবিধি অহিফেনশোধনাবিধি : কুচিলাশোধনবিধি ”. ভল্লাতকশোধনবিধি | গুগ্গুলুশোধনবিধি ১৩ হিস্থুশোধনবিধি রসোনশোধনবিধি সীজক্ষীরশোধনবিধি আকন্দশোধনবিধি ঝুঁচ করবীমূলশোধনবিধি ' বিবিধ বীজ শোধনবিধি জলৌকাশোধনবিধি ১৪. পরিমাণনির্ণয দ্রব্যবিশেষে মাত্রার ভেদ সরস দ্রব্যবিশেষে গ্রহণবিধি পুরাতন দ্রব্যবিশেষে গ্রহণবিধি ' দ্রব্যাঙ্গগ্রহণবিধি " , খতুতেদে দ্রব্যাঙ্গ গ্রহণ ১৫ ওষধের বীর্য্কাল নিরূপণ ; ওষধ গ্রহণের স্থান নিরূপণ ওধধগ্রহণে অপ্রশস্ত স্থান ”. পুংস্্ীভেদে প্রাণিজ দ্রব্য ”। গ্রহণ

বিষয় এক দ্রব্যের অভাবে অন্য দ্রব্য

গ্রহণবিধি

সমগুণবিশিষ্ট একদ্রব্যের অভাবে

অন্য দ্রব্য প্রদানবিধি রস তদ ভাবে রস, প্রস্তত- বিধি তওুলোদক প্রস্ততবিধি উষ্জোদক প্রস্ততবিধি কাজি প্রস্ততবিধি তক্রু প্রস্ততবিধি কট প্রস্ততবিধি অম্রমূলক প্রস্ততবিধি মধুশুক্ত প্রস্ততবিধি পর্পটী প্রস্ততাবিধি অনাদিসাধনবিধি মাংসরস প্রস্ততবি ধি মাংসমুষ প্রস্ততবিধি হপ্ধপাকবিধি মোদকপাকবিধি গুড়পাকবাধ গুগ্গুনুপাকবিধি ওষধপ্রস্ততবিধি চুর্ণের পাক নিষেধ নেহপাকবিধি ভাবনাবিধি কাধে প্রক্ষেপমাত্র! নিরূপণ কাথে দোষতেদে মধু চিনির প্রক্ষেপ-মাত্র! দোষতেদে অন্থুপানের মাত

&/

স্তন্পায়ী শিশুর ওঁধধ সেবনবিধি মহাপুটবিধি

72 1

2

২৬ | বমনের অযোগ্য ব্যক্তি নিরূপণ

- ২৭:

2 1

| ঠা! ! ]

"|

]

পৃষ্ঠা : বিষয়

ওধধ ভক্ষণবিধি ওষধ সেবনের কালনির্ণয় :

গজপুট বিধি ববাহপুটবিধি

কৌক্ুটপুট বিধি

কপোত ব৷ লঘুপুটাবিধি ভাগুপুটবিধি

ষধ পরিজ্ঞটুনের উপায় ুঁষধের গুণপরীক্ষ।

বিরেচনাযোগ্য ব্যক্তি নিরূপণ নস্ত গ্রহণে অযোগ্য ব্যক্তি নিরূপণ

কটুতৈল মৃচ্ছাবিধি তিলতৈল মৃঙ্ছাবিধি এরও তৈল মৃষ্ছীবিধি দ্বত যুঙ্ছাবিধি গন্ধপাকত্রব্য মতান্তরে গন্ধপা কত্রব্য যুষ প্রস্ততবিধি

২৮ খৈরম্ও প্রস্ততবাধি

হিঙ্গুলাকষ্টরস রৌপ্য তন্মবিধি

২৯ |

৩০ | ভল্লাতকের গুণ প্রয়োগপ্রণালী

স্বর্ণ সিন্দূরসহ স্বর্ণের উত্থান

ভল্লাতক শোধনে সতর্কতা ' | তাম্রাদি তম্মের সহজ প্রণালী

বিষয় পৃষ্ঠা | বিষয় পৃষ্টা | জ্বরকুলাস্তক ১১ ্রন্থারস্ত। পঞ্চবক্ত রস ১২ বায়ু, পিত্ত কফের প্রাধান্য বায়ু, পিত্ত কফের সাধারণস্থান বায়ুর কার্য বিটি 5 পিত্তের কার্য্য 479 | | কস্তরীভৈরব শ্লেম্মার কার্ষ্য কাত নর বামুর স্থানভেদে নাম কার্য টি রী রম পিত্তের স্থানভেদে নাম কার্য্য | কক কারিনা নারাকা আগরকস্ত,রী ( যতাস্তরে ) জি * [ কম্ত,রীভূষণ ( মতান্তরে ) " জ্বরে-_উদরাশ্বান-চিকিৎসা ১] জ্বরের লক্ষণ ”. হিঙ্গ ্কচূর্ণ জরচিকিৎসাবিধি স্বশ্প অগ্রিমুণচূর্ণ জ্বরে ওঁষধপ্রয়োগাবিধি | দারুবটকপ্রলেপ কারণতেদে জরের রূপান্তর যবপ্রলেপ সামজ্বরে-_উষধ। জ্বরে__অতিসার-চিকিৎসা। মৃত্যাজয় রস সদ্ধপ্রাণেশ্বর রস ১৬ হিজুলেশ্বর সব্বাঙ্গসুন্দর ব! মহ্?গন্ধক ্াবটা » প্রাণের রস ১৭ অখ্বিকুষমাররস ১০ *: জ্বরে বমন-চিকিৎস। আরমুবারি টু | পিপ্নল্যান্ধলৌহ ১৭ নবজরেভাগ্কুশ ১১ চন্দ্রকান্তি রস ১৮ চণ্ডেশ্বর | স্বর্ণমৎস্যণ্ডী

মহাজবাষ্ধুশ . | ক্রিষিনাশক যোগ

[ 1/৭ ] বিষয় পৃষ্ঠা বিষয় পৃষ্ঠা ছন্গিহর যোগ ১৯ জ্বরে অরুচি-চিকিৎসা স্বরে-__প্রলাপ-চিকিৎসা | সুধানিধিরস ২৫ | ্ট পারি | প্রলাপনিবর্ভক 18 জ্বয়ে-দাহ-চিকিৎসা। . সম্সিপাতত্বরের লক্ষণ » . ভ্রয়োদশ সন্নিপাতজ্বরের সাধারণ দ্াহমঞ্রী সা দৃহান্তকলৌহ ২০. & দাহহরলেপ "বায়ু, পিত্ত কফের হ্রাস, মধ্যা- ভ্বরে-_পিপাসা-চিকিৎসা | : বন্থা এবং বৃদ্ধি অনুসারে ত্রয়ো- ' দশ সনিপাতের নাম লক্ষণ বড়ঙ্গপাশীয় তৃষ্কাহরযোগ ২১ | বিস্ষারক ব৷ বাতোন্বন সন্িপাতের

জ্বরে_ কাস-চিকিৎসা

কাসকুঠার চন্দ্রামৃতরস ২২. কাসাস্তক রস

জ্বরে -সর্ববাঙ্গ শুল-চিকিৎসা

বাতগজাদ্শ রামবাণরস ২৩ রসোনাদি র্চাথ বানুকাম্ষেদ রর

জ্বরে শিরঃশুল-চিকিৎসা। লক্ষ্মীবিলাস রস

স্বর্ললক্্বীবিলাস

লক্ষণ ২৬

আশুকারী ব৷ পিকোম্বন সন্লিপাতের

লক্ষণ কম্পন বা কফোন্বনসন্রিপাতের

লক্ষণ বন্ধ বা বাতপিস্তোন্বন সন্তিপাতের

লক্ষণ ২৭ শীত্রকারী ব৷ বাতশ্লেম্মোন্বনসন্গিপাতের লক্ষণ রি ভন্গু বা পিত্তপ্লেম্মোত্বন সব্রিপাতের লক্ষণ কুটপালক বা বানু, পিস্ত শ্লেন্োত্বন সন্নিপাতের লক্ষণ

২৪ | সংমোহ ব৷ প্ররৃদ্ধবায়ু, মধ্যপিত্ত

হীনকক সন্নিপাতেত্স লক্ষণ ২৭

]

বিষয়

পাকল বা মধ্যবায়ুঃ প্রবৃদ্ধপিত্ত হীনকফ সন্গিপাতের লক্ষণ

ক্রকচ বা প্রৰৃদ্ধবায়ু; হীনপিত্ত মধ্যকফ সন্লিপাতের লক্ষণ

যাম্য বা হীনবাত, প্রবদ্ধপিভ মধ্যকফ সন্নিপাতের লক্ষণ

কর্কটক ব৷ মধ্যবামুং হীনপিত্ত প্রবৃদ্ধকফ সন্নিপাতের ল্ক্ষণ

বৈদারিক বা হীনবায়ু, মধ্যপিত্ত প্রবৃদ্ধকফ সন্লিপাতের লক্ষণ

২৭!

1৮০ ]

পৃষ্ঠা | বি

২৮ চক্রশেখর বস

: ত্রিদোষনীহার বস » | বৃহৎ ত্রিদোষনীহার রস মৃত্যুগ্য় রস | শ্রীসন্লিপাতমৃত্যুয়রস | কফকেতু বস ”» | রসরাজেন্ সন্লিপাত বড়বানল রস

টপ

ত্রয়োদশ সন্গিপাত সবরের নামান্তর অঘোরনৃসিংহ রস

লক্ষণান্তর |

শীতাঙ্গ সন্নিপাতের লক্ষণ তন্ত্রিক সন্নিপাতের লক্ষণ প্রলাপক সন্িপাতের লক্ষণ রক্তষীবী সন্নিপাতের লক্ষণ ভূগ্ননেত্র সন্নিপাতের লক্ষণ অভিন্যাস সম্নিপাতের লক্ষণ জিহ্বক সন্নিপাতের লক্ষণ সদ্ধিগ সন্গিপাতের লক্ষণ অস্তকসন্গিপাতের লক্ষণ রুগ্দাহ সন্িপাতের লক্ষণ চিক্তত্রম সন্নিপাতের লক্ষণ কর্ণিক সন্িপাতের লক্ষণ কণ্কুক সন্্িপাতের লক্ষণ সন্নিপাতজ্ঞর-চিকিৎসাবিধি

সুচিকাভরণ বস

বৃহৎ সচিকাভরণ রস কম্ত,বীতৈরব ্‌ [ জ্বরকত্ত,বীভৈরব | আগরকম্ত,রী

; আগরকন্ত,রী ( মতাস্তরে )

| স্বর্ণকম্তরী চে মৃগাঙ্ককত্ত,রী

* | নবজরেতকনী | মহা লক্মীবিলাস | চতুভু'জরস | কম্ত বীভ্ষণ

| কম্তবীভূষণ ( মতান্তরে )

| বৃহৎ কন্ত,রী ভৈরব

৩১ | বৃহৎ কন্ত রীভৈরব ( মতান্তরে )

সন্নিপাতজ্তরে-ওষধ

মৃগাক্ককন্ত রী (মতান্তরে )

৩৫

৩৬

[ 1৬০ ] বিষয় পৃষ্ঠা ' বিষয়

' দ্াহাস্তক লৌহ ৫১ সন্নিপাতন্বরে-_কাস-চিকিৎসা চি কাসান্তকরস ৪৬ ধান্যশর্করা 1৮ রি সন্গিপাত্জ্বরে-_তৃষ্তা-চিকিস]

রণ র্‌ ! রে 0 ষড়জপানীয় সঙ্গিপাতন্বরে_শ্বাস-চিকিৎসা। | তৃষ্ণহরযোগত্রয % ান্্যাদিকাথ ৪৭ 'সন্সিপাতত্বরে_ণ্ম-চিকিতস | শৃঙ্গাদিচুর্ণ রর . স্বাসকুঠার ৪৮ | ্বাসচিস্তামণি ”1 সন্নিপাতন্্রে-_অতিসার- বৃহৎ শ্বাসচিন্তামণি রি চিকিৎস। | পাতন্বরে র্তবম প্রাণেস্বর রস নি | সিদ্ধ প্রণব রদ ৫৩ হিককা1-চিকিৎসা। পট দির পপ্রল্যাস্থলৌহ ৪৯ : সন্মিপাতভ্বরে-__সববাগশুল- চন্দ্র কান্তিরস রা চিকিৎসা স্ব্ণমতস্যপ্তী ৮; ক্রিমিনাশকযোগ | বাতগজান্ধুশ ছদ্দিহরযোগ র্ বাতশৈলেন্ত্ররস জাতীপতন্রযোগ স্বল্প লক্মীবিলাস £ এলাদিগুড়িকা তি বানুকাস্বেদ সম্িপাতন্বরে-প্রলাপ-চিকিৎস৷ |সক্গিপাতন্বরে _অরুচি-চিকিৎসা। সিদ্ধবটা আমলাগ্ধযোগ " পনিবন্তক সুধানিধিরস ৮, প্রলা চটি সন্সিপাতন্বরে-_শোথ-চিকিৎস! সন্গিপাতভ্বরে__দাহ-চিকিৎস| |; |

ব্ুক্তমোক্ষণ রঃ দাহমঞরী : হিঙ্াদিলেপত্রয় ?

[ ॥০ ] বির পৃষ্ঠা | বিষয় পৃষ্ঠ সম্গিপাতন্থরে__ুচ্ছা,জ্ঞানলোপ' সন্নিপাত জ্বরে__নাড়ীর গতির প্লৈথ্মিকবিকার-চিকিৎসা 'বিশৃঙ্খলতা হিমাঙ্গ-চিকিৎসা

মহেন্দ্রহর্যারস বালুকাস্বেদ ৬৯ বচাদিনস্ত কর্কোটিকাস্ উদ্‌বর্তন রা সৈষ্ধবাদিনস্থ মুগনাভিষোগ " তুরঙ্গাদিনস্ত » | বৃহৎ কন্ত,রীতৈরব সিদ্ধার্থকলেপ * বৃহৎ হচিকাতরণ " বৃহৎকফকেতু ৫৭ আগন্তভ্বরের লক্ষণ। লেনুন্বররস ' বিষতক্ষণ জনিত জ্বরের লক্ষণ. ৬২ তুখকষোগ ”. ওষধিগন্ধ জনিত জ্বরের লক্ষণ

সন্গিপাতন্বরে আক্ষেপ, মত্ততা ! কামবেগ জনিত অরের লক্ষণ | | তত্র? শোক ক্রোধ জনিত জ্বরে

ভ্রম-চিকিৎসা রা পু বহও্কফকেতু ; ভূতাতিষঙ্গজরের লক্ষণ বৃহৎ্কফকেতু (যতাস্তরে ) ৫৯ ' অতিচার অভিশাপজন্ জরের বাতকুলাস্তক ০, রিটা 1... আগন্তস্বর-চিকিৎসা। সন্নিপাতজ্বরে__-উদরাধ্মান এবং ; বিষভক্ষণ ওষধিগন্ধজনিত- মল যুত্ররৌধ-চিকিৎসা | ; ভ্বরে-উষধ

পন রর

খর রং গু « | কামজ্বরে-ওষধ & বলাদি ববপ্রলেপ টা বটপ্রী প্রলেপ শ্‌ তয়াদিজনিতজরে-উষধ ৩৪ বিশ্বিকান্ প্রলেপ "| নিরাম মধ্স্বরে-_উষধ।

বস্তিক্রিয়া ; চজ্জশ্েখেররস

বিষয় শীতারিরস বাতপিতাত্তক রস মধ্যমজ্দরাক্কুশ জ্বরারি অভ্র চিন্তামণিরস সৌভাগ্যুবটী যকরধ্বজবটিকা জ্বরারিরস *বৃহত্ বিশ্বেশ্বর রস সার্বতৌমরস জ্বমাতঙ্গকেশরী

জ্বরে-কষায় প্রয়োগবিধি |

শুগ্যাদি কাথ কণাদি াথ শ্রীফলাদি ক্কাথ পঞ্চমূল্যাদি ককাথ পর্পটাদদি কাথ স্বীবেরাদি ক্কাথ কিরাতাদি ক্কাথ দ্রাক্ষাদদি কাথ সিন্ধবার ক্কাথ মরিচাদিকাথ গুড়,চ্যাদি কাথ বৃহৎ গুড় চ্যাদি কাথ ঘনচন্দনাদি কাথ পঞ্চতদ্র হাথ অমৃতাষ্টক কাথ কণ্টকার্য্যাদি কাখ

[ 1/০ ]

পৃষ্ঠা | বিষয় পৃষ্ঠ ৬৪ | পঞ্চতিক্ত কাথ ৭৩ ৬৫ ; পঞ্চকোল কাথ ৭৪ | পিগ্নল্যাদি কাখ | বৃহৎ পিপ্পল্যাদি কাথ রর ৬৬ দশমূল ক্কাথ ৭৫ " , দ্বাদশাঙ্গ কাথ ৬৭ চতুর্দশাঙ্গ কাথ গু | অষ্টাদশাঙ্ককাথ ৭৬ ৬৮ | বৃহত্যাদি কাথ টি | শট্যাদি কাথ | ণঁ অাদি কাথ পন্মকাদি কাখ ৭? কারব্যাদ কাথ / কিরাতাদি সপ্তক 1০ | স্বর্পপঞ্চযুল কাথ "| কট্‌ৃফলাদি কাথ ৭৮ "| বৃহৎ কটুফলাদি কাথ ৭১ | বিষম জীর্ণজ্বরচিকিৎসা » | বিবমজ্বরের সাধারণ লক্ষণ ৭৯ " | সম্তত অরের লক্ষণ | সততকজ্বরের লক্ষণ 1 ৭২ | সততবিপর্যায় জ্বরের লক্ষণ ৮০ | অন্তেত্ধ্যক্ষজরের লক্ষণ "| অন্টেত্যঞ্ধ বিপর্যয় জরের লক্ষণ | তৃতীর়ক জ্বরের লক্ষণ ৭৩ | তৃতীয়ক বিপর্য্যয় অরের লক্ষণ রর | চাতুর্থক জরের লক্ষণ ৮১

৭৩ | চাতুর্থক বিপর্য্যয় অরের লক্ষণ «

বিষয় পৃষ্ঠা | বিবয় পৃষ্ঠা রসগতজ্রের লক্ষণ ৮৩ | সততারি রস ৯৮ রক্তগতজ্বরের লক্ষণ " বৃহৎ চিস্তামণিরস ৯৯ মাংসগত জরের লক্ষণ ; ছুঙ্জলজেতারস রি যেদোগত জ্বরের লক্ষণ * | বৃহৎ জ্বরচিস্তামণি £ অস্থিগতজ্বরের লক্ষণ " ৮২ | বৃহদ্ণ বিষমজ্বরারিরস নী মজ্জাগত জ্বরের লক্ষণ | বৃহৎ কম্ত,রীতৈরব শুক্রগত জরের লক্ষণ মহারাজবটী . ১০৯ রাত্রি জরের লক্ষণ | বৃহৎ চুড়ামণিরস ১০২ দুর্জলজনিত জ্বরের লক্ষণ : জ্বরকুপ্ধরপারীন্দ্ররস বাঁতবলাসকজ্বরের লক্ষণ 1 সব্বজ্বরহরলৌহ তি প্রলেপক জ্বরের লক্ষণ ৮৩ বৃহৎ সর্ধজ্বরহর লৌহ & অর্ধনাডীশ্বর জ্বরের লক্ষণ সু বৃহৎ বিষমজ্বরাস্তক রস ১০৪ জ্বরের সাধ্যাসাধ্য লক্ষণ * | মহাজ্রাক্ুশ . বিষমজ্বরে দোষ নিরূপণ ৮৪ | অর্ধচন্দ্ররস ১০৫ বিষম ওজীর্ণজ্বর চিকিৎসাবিধি ৮৫ | জয়মর্জলরস গু জীর্ণ বিষমন্্রে-উষধ | | অর্দনাডীশ্বররস ১০৬ বিশ্বেশ্বর রস % কণাবটী ৯৩ | জ্বরকালভৈরব টি জ্বরাশনি লৌহ চন্দনাদি লৌহ ৯৪ চর্ণ-প্রয়োগ বিধি। ্লেক্সশৈলেন্দ্র রস | বদ্ধমান৷ পিপ্ললী ১০৭ পুটপক্ক বিষমজ্বরাস্তক লৌহ ৯৫ | বিষমজ্ববাস্তক চূর্ণ % বিষমজরাস্তক লৌহ ৯৬ | জরসংহার চুর্ণ বড়াননরস | কিরাতাদ্দি চূর্ণ ১০৮ ত্র্যাহিকারিরস | গুড়চ্যাদি চূর্ণ কি চাতুর্থকারিরস ৯৭ | স্বব্লস্দর্শনচুর্ণ জ্বরারি রস সুর্শনচুর্ণ হই সর্বতোতদ্ররস জ্বরতৈরব র্ণ রা

বুহৎ অদ্রান্তকলৌহ ৯৮ : একাহিকআরে মুলিকাদিপ্রয়োগ

[ 0৬০ ]

বিষয় পৃষ্ঠা! বিষয় পৃষ্ঠা তৃতীয়কজ্বরে মূলিকাদিপ্রয়োগ ১১৯ ' বৃহৎ অঙ্গারক তৈল ন্ট . চাতুর্থকজ্বরে নস্য ওঁষধ ' লাক্ষাদি তৈল ১১৯ বিষমজরে ধৃপ প্রয়োগ মৃহালাক্ষাদি তৈল অষ্টাঙ্গধূপ ৮. কিরাতাদি তৈল অপবাজিতাধৃপ বৃহৎ কিরাতাদি তৈল ১২৩ অজাদি ধৃপ্চ বৃহৎ জ্বরভৈরব তৈল & বা _.. জ্বরে__পথ্যাপথ্যবিধি | কাধ-প্রয়োগবিধি | নবজ্বরে পথ্য ৯২১ পটোলাদ্িকাখ ১১২ ' যুষপ্রস্ততবিধি ১২২ মধুকাদিকাথ ”., অন্কপ্রকার যুধ প্রস্ততবিধি / মহৌবধাদিকাথ ' অন্য প্রকারে মুদগষুষ প্রস্ততবিধি ৮” উশীরাদিক্কাথ মুদগামলক যুষ প্রস্তৃত বিধি 'বাসাদিকাথ ৯৯৩ মধ্যজ্বরে-পথ্য ১২৩ তাখযাবিকাধ " . পুরাতন ভ্বরে-পথ্য তাণ্গ্যা্দিকাথ ( মতান্তরে ) রৃহদ্ভার্ন্যাদিকাথ ১১৪ জ্বরাতিসার-চিকিৎস1। দাস্যদিকাথ জ্বরাতিসারের লক্ষণ ১২৪ দার্ব্যাদিকাথ ১১৫ পিত্তজ্বরজনিত জবরাতিসার লক্ষণ পঞ্চমূল্যাদিক্ষীর :_ পিস্তাতিসার জনিত জরাতিসারের বশ্টারাদিক্ষীর "লক্ষণ £ টি _. স্বরাতিসার-চিকিৎসাবিধি ক্ষীরষটপলক ঘ্বত ১১৬ জ্বরাতিসারে-ওষধ | দশমূলবটপলক রঃ ১১৭ হীবেরাদি কাথ ২২৭ পিশনল্যাসদ্বত . উীরাদি কাথ . রা " গুড়,চ্যাদি কাথ ১২৮ বলাম্বত ১১৮! কলিঙ্গাদিকাথ রি

সজারকতৈল রি পঞ্চমূল্যাদি কাথ টি রি

[ ৮৮০

রা পা

|. বিষয় ষ্ঠ শঙ্থাদিচু্ ১৫৭! শুপ্ঠীযোগ হর দীহা।মকৎ উরোগ্রহরোগে ফলত্রিকাদিকাথ রি রা ”? ! লৌহযোগ রি পাু-কামলা হুলীমক-- বিড়ঙ্গাদিলৌহ ১) চিকিৎসা নবায়সলৌহ টু পা্ুরোগের লক্ষণ | ্টাশা্লৌহ বাতিক পাণ্ুরোগের লক্ষণ ৮] ত্রিকত্রয়াদ্য লৌহ পৈত্তিক পা্ুরোগের লক্ষণ ১৫৮: পিন শ্লৈম্মিক পাওুরোগের লক্ষণ ) চন্্রনত্য্যাত্মকরস সান্লিপাতিক পাণ্ুরোগের লক্ষণ.” 91859 ৃত্তিকাতক্ষণ জনিত পাওুরোগের . জবটকম্র | লক্ষণ % 1 পঞ্চামৃতলোহমণ্র ১৭১ ক্রিমিকোষ্ঠের লক্ষণ 7) পুনর্ণবামতুর 2 রি কামলারোগের লক্ষণ | অমৃতলতান্া্বত কারদারো রর ভা নাহিও না হলীমকরোগের লক্ষণ | ব্যোষাস্তঘ্বত পাওুরোগাদির অসাধ্যলক্ষণ | টড ,ণহ রা পুনণনাতেল ১৭৩ পা) কামলা হলামকরোগে। রং হিরন এর পা কামলারোগে__উদরা- কামলা হল পা, হলীমকরোগে ময়-চিকিৎসা চিকিৎসাভেদ ১৬৫ পা কামলা হলীমক- পীয়ুবনলীরস টী ওষ জাতীফলাগ্ঠবটিকা রি হির্যগ্তুপোট্টরলীরস ১৭৪ 288 ১৬৬ | লৌহপর্পটী রি রি কণাগ্ভলোহ 5

বিষয় ষ্ঠা বিষয় ষ্ঠ। পাণ্ডু কামলারোগে পা্ড কামলারোগে শোথ-চিকিগসা অরুচি-চিকিৎসা। শোথারিচর্ণ ১৭৫ আর্দকমাতুলুঙ্গাবলেহ রী শোথকালানলরস ১৭৬ | সুধানিধিরস ১৮০ ক্রাবণাখ্যলৌহ পা, কামল! হলীমকরোগে পাণ্ড কামলারোগে | পথ্য | কোষ্ঠবদ্ধতা-চিকিৎসা। ! উদররোগ-চিকিৎুসা 05 |] বাতোদর লক্ষণ 0585 নি | পিতোদর লক্ষণ ১৮১ পা কামলারোগে | শ্লৈন্মিকোদর লক্ষণ ক্রিমি-চিকিৎসা। | সারিপাতিক উদর পক্ষ বদ্ধোদর লক্ষণ ১৮২ বিড়ঙগলৌহ ' ক্ষতোদর লক্ষণ টু ক্রিমিকালানলরস জলোদর লক্ষণ ক্রিমিরোগারিরস ১৭৮ জাতোদকোদর লক্ষণ ১৮২ ক্রমিতদ্রবটিকা উদররোগের অসাধ্যলক্ষণ পা কামলারোগে উদররোগ-চিকিৎসাবিধি ১৮৩ মহালক্্ীবিলাস শ্লেম্মশৈলেন্জরস ১৭৯ | পুনর্ণবাদিকাথ ১৮৮ . পুনর্ণবাদিকাথ ( মতান্তরে পা কামলারোগে বা ) দ্শমুলাদিকাথ ১৮৯ বমন-চিকিৎসা। . : দেবছার্কাদি যোগ সপ্তাম্ৃতলৌহ ”. পটোলাস্ঘচুর্ণ বান্রীলৌহ , গ্ুনর্ণবাদিচুর্ণ

বিষয় পুনর্ণবাদিচুর্ণ ( মতান্তরে ) ইচ্ছাভেদীরস ছুপ্ধবটী হুপ্ধবটী ( মতান্তরে ) জলো দরারিরস বহিরস শ্রীবৈগ্যনাথাদেশবটিকা। পিপ্পল্যাদ্ভলৌহ চুলিকাবটা পিপ্ললীবদ্ধমান। স্ব্পর্পটা রসপর্পটী লৌহপর্পটা বিন্দদ্বত চিন্ত্রকত্বত রসোনতৈল

উদ্রীরোগে- উদরাধ্মান-

চিকিৎসা কুষ্ঠাদিচুর্ণ সামুদ্রানচুর্ণ স্বল্প অগ্রিমুখচুর্ণ . ব্রিকটুকাগ্তাবন্তি

উদরীরোগে- উদরাময়-

চিকিৎস| | বর্ণপর্পটী

লৌহপূর্ণটা উদররোগে--পথ্য

| ১২ ] পৃষ্ঠা | বিষয়

১৯০ |

শোথ-চিকিৎসা

৮”. বাতিক শোথের লক্ষণ পৈত্তিক শোথের লক্ষণ ১৯১: শ্লৈস্মিক শোথের লক্ষণ | দ্বিদোষজ শোথের লক্ষণ | ভ্রিদদোষজ শোথের লক্ষণ ১৯২ | অতিঘাতজ শোথের লক্ষণ রর ”। বিষজ্ত শোথের লক্ষণ ”» | দোঁষভেদে শোথের স্থান নিরূপণ ১৯৮ ”; শোথের সাধারণ লক্ষণ * ১৯৩ , শোথের সাধ্যাসাধ্য লক্ষণ রঃ ' স্্রী পুরুষতেদে শোথের সাধ্যা- ১৯৪ | সাধ্য নিরূপণ গু শোথ-চিকিৎসাবিধি

শোথরোগে- ওষধ |

| কৃষ্ণাগ্ প্রলেপ ২৭২ _ তিললেপ : ১৯৫ পুনর্ণবাগ্ভলেপ | অপামার্গশ্মেদ

শালদলচর্ণ রী

| ফলত্রিকাদিকাথ

পুনর্ণবাষ্টককাথ র্

পটোলাদিকাথ

পথ্যাদিক্কাথ

"; পুনর্ণবাদিটর্ ? ১৯৬ শোথারিচুর্ণ | ক্র্যষণান্লৌহ *

১৯৬

৯০৭

১৯৯

[ ১/০ 1

বিষয় পৃষ্ঠা | বিবয় পৃষ্ঠা কটুকাস্লৌহ ২০৫ | শ্তঠীত্বত শোথকালানলরস * | পুনর্ণবান্ঘ্বত শোথাক্কুশরস | মাণকত্বত * পঞ্চামৃতরস | পুনর্ণবাদিতৈল / ছুপ্ধবটা শুষ্কমূলাগ্ঘ তৈল ২১০ কষেব্রপালরস ২০৬ বৃহৎ শু্কমূলাস্য তৈল ট্ভাতির " শোথরোগে _ উদরাময়-চিকিৎসা হরগৌবারস রী বট রন , দ্রধিবটা রর রর রসপর্পটী , স্বর্ণপর্পটী তক্রমণ্ড শী শোথে-_কাম-চিকিৎসা | রমপর্পটা ২০৮ পুরন্দরবটা লৌহপর্পটা ! তরুণানন্দরস রী ্র্ণপর্পটা চন্দ্রামৃতরস ২১২ মাণমণ্ড ২০৯ শোথরোগে-পথ্য

প্রথমখণ্ডের সূচীপত্র সম্পূর্ণ

আযুর্রেদ-শিক্ষা

শোধন মাঁরণবিধি

পাঁরদশোধনবিধি |

প্রজ্বখলে পারদ রাখিষ: রস্থনের স্বরস দ্বার! এঁ পারদ কিছুকাল মর্দন করিবে অনস্থর বৌদ্রে শ্ু্ষ করিরা বন্্ধগড দ্বার) ছ্াকিঘ়্া পানের রসে পারদকে পুনরাঁয মদ্দন করিবে $ তৎপরে পুব্বব্ধ বৌদ্রে শুক কিয়া খন্্রথণ দ্বারা ছাকিরা লইবে অথব। পান রসুনের স্ব্রস একত্র কবিয়। তন্াা পাঁলদকে নৌড্রে ভাবন। দিয়া & রস শুষ্ক হইলে, জলে ধৌঁভ করিয়া বন্গখণ্ড

দশ) ছাকিযা লইবে

হিক্কলোথপারদপ্রস্ততবিধি

তিঙ্্রলকে নিম্বপত্ররসে অথবা জামীরের ( গোঁড়ালেবুর ) রসে এক প্রহর কাল মদ্দন পুর্বক পিগাঁকার করিয়া একটী দৃঢ় মায় হাঁড়ির মধ স্কাপন করিবে এবং হাঁড়ির মুখে একখানা শরা চিৎ করিয়া চাপা দিনে; অনস্তর শরার সন্ধিস্থান মৃত্তিকা ব! ময়দার লেই দ্বারা এরূপ ভাবে লিপ্ত করিবে, যেন হাঁড়ির মধ্য হইতে ধুম নির্গত না হস, কারণ ধূম নির্গত হইলে তৎ্সঙ্গে পারা বহির্ত হইয়া যাইতে পারে ; তত্পরে শরার উপর কিছু জল দরিয়া ইাড়ির নিয়ে জ্বাল দিতে থাঁকিবে, শরার জল উষ্ণ হইলে, যখন জ্ঞল হইতে ঈষৎ ধূম উঠিতে থাকিবে, তখন জল হাতা দ্বারা ফেলিয়৷ দির! পুননুণনন শীতল জল দিবে এবং জল পূর্ব উষ্ণ হইলে আবার ফেলিয়া দিবে,

আযুর্বেবদ-শিক্ষা

এইরূপ ভাবে প্রতিতোলা হিঙ্থলে বার করিয়া জল পরিবর্তন করা আবশ্তক। হিঙ্থলোখিত পারদ শরার পৃষ্ঠে কালীর সহিত মিশ্রিত থাকে; সেই পারদকে প্রস্তরের খলে পুনঃ পুনঃ ঘর্ষণ ধৌত করিয়া কাপড়ে ছা'কিলেই পরিষ্কত হয়; এই পারদ অষ্টদৌষ বর্ধত সর্ধকার্ষ্যে ব্যবহৃত হইয়া থাকে

গন্ধকশোৌধনবিধি |

একখানা লৌহনির্ষিত হাতায় কিঞ্চিৎ ঘ্বত রাঁখিরা অগ্রিতে উত্তপ্ত করতঃ গন্ধকের ক্ষুদ্রথগড সমূহ হাতায় নিক্ষেপ করিবে এবং গন্ধকের খণ্ডসমূহ দ্রব হইলে, উহা। ছুপ্ধমধ্যে নিক্ষেপ করিবে, পরে হুগ্গনিক্ষিপ্ত গন্ধককে জলে ধৌত করিয়া শুকাইয়া লইলেই উভাঁ বিশোধিত হয়: এই রূপে শোধিত গন্ধক সব্বকাধ্্যে প্রযোজ্য

কৃ শষ 'লী প্রস্তুতবাধ |

পুব্বোক্ত প্রক্রিরাদ্বারা শোধিত পারদ শোধিত গন্ধক তুলাংশে লইয়। একখানা প্রস্তবথলে মণ্দন করিবে, যাবৎ গন্ধক পারদ মিশ্রিত হইয়। কজ্জল প্রায় দৃষ্ট না হইবে, তাবৎ মর্দন করিতে থাকিবে, পারদের সুস্মকণা- সমূহ অনৃপ্ঠ হইলে কজ্জলী প্রস্থন্ত হইয়াছে জানিবে। কোন ওুঁধপে পারদ ভাগ গন্ধক ভাগ উক্ত থাকিলে, সেই স্বানে কজ্জলী ভাগ গ্রহণ করিবে; যে ওষধে গন্ধকের ভাগ অধিক থাকিবে, সেই ওউধধে কজ্জলীর সহিত অতিবিক্ত গন্ধক পৃব্বে মিশ্রিত করিয়া লইবে অর্থাৎ পারদ তোল। এবং গন্ধক তোলা কোন ওধধে আবশ্তক হইলে, সেই স্থানে চাবিতোলা কজ্জলীর সহিত ১তোলা শোধিত গন্ধক উত্তমরূপে মদ্দন করিয়। ওষধে ব্যবহার করিবে পারদশোধনবিধি পৃষ্ঠায় গম্ধকশোধনবিধি পষ্ঠায় দ্রষ্টবা।

হিন্থুলশোধনবিধি |

হিজ্গুলকে একথানা কাপড়ে বাঁধিয়া! হাঁড়ির মধ্যে জন্বীরের ( গোড়ালেবুর ) রসে নিমজ্জিত করতঃ হাড়ির নিয়ে জাল দিবে; কিছুকাল পরে এঁহিঙ্থুল বাহির করিয়া রৌদ্র শুষ্ক করিলেই হিঙ্ীল শোধিত হয়। এতৎ্যতীত বক- ফুলের পাতার রস দ্বারা বার ভাবনা দিয়া লইলেও হিন্ুল শোধিত হয়।

পরিভাষা প্রকরণ।

রসসিন্দুরপ্রস্তৃতাবিধি |

রসসিন্দুর প্রস্তত সন্বন্ধে বিবিধ মত শাস্ত্রে দুষ্ট হয়; কিন্তু সব্ধদা বাবঙগত বিধি এই স্থানে লিপিবদ্ধ করা হইল পুর্ষোক্ত নিয়মে শোধিত পারদ তোলা এবং শোঁধিত গন্ধক পাঁরদের পমান গ্রহণ করির। কঞ্জলী করত কজ্জলীকে বটের অঙ্কুরের রাখদ্বারা বার ভাবনা দিবে ; অনস্তর কজ্জলী মুত্তিকালিপ্ত একটি কাঁচেন বোতলে পূর্ণ করিয়। তাহার মুখ খড়ী দ্বাবা বন্ধ করিবে এবং একটী মাটির হাড়ির নিয়ভাঁগে একটি সুম্ম ছিদ্র কিয়! তন্মধ্যে বোতল এরূপতাবে স্থাপন করিবে, যেন হাড়ীর ছি্রের উপর বোতল দণ্ডায়মান থাকে, তৎপরে হীড়ী বালুকাদ্বারা পুর্ণ করিয় হীড়ীর নিয়ে জ্বাল দিবে, সময় সময় বোতলের মুখ উত্তপ্ত লৌহের শিকদ্বার। পরিষ্কার করিয়া! দিবে, এরূপতাবে চারি প্রহর জ্বাল দিলে সমস্ত পারদ বোতলের গলা সংলগ্র হইবে | বোতলের মধা হইতে অগ্নির আভি! দৃষ্ট হঈলে, পাক সিদ্ধ হইয়াছে জানিবে, ততৎপ্রে বোতল শী তল হইলে ভাঙ্গিবা তাহার মধা হইতে রসসিন্দুর গ্রভণ করিবে, পানাদ শোষন লিপি পৃষ্ঠার গন্ধক শোধনবিপি পৃষ্ঠায় দ্রষ্টবা

স্বর্ণ সিন্দুরপ্রস্ততবিধি

স্বর্ণপাত তোল শাস্ত্োক্ত নিয়মান্ুসারে শোধন করিয়া কাচিদ্বার অতি হুক্রূপে কর্তন করিবৈ : পরে উহার সহিত শোধিত পারদ তোলা মর্দন করিয়া মিশ্রিত করিবে, স্বর্ণের সহিত পারদ মিশ্রিত হইলে, উহাতে শোধিত গন্ধক তোলা প্রদান পৃর্বক কজ্জলী করিয়! মৃত্তিকালিগ বোতলে পূর্ণ করিবে, পরে সচ্ছিদ্র হীড়ীর উপর বোতল স্থাপন করিয়া বোতলের গলার নিয্ুভাগ পর্যান্ত বানুক দ্বারা পূর্ণ করিবে, এবং গলদেশ সম্যক্রূপে লবণে বেষ্টিত করিয়া বোতলের মুখ খড়ী দ্বারা রুদ্ধ করত রস- সিন্দুরের পাকের নিয়মান্থসারে প্রহর পাক করিবে ; বোতলের মধ্য হইতে অগ্রির আভা দুষ্ট হইলে, পাক শেষ হইয়াছে জানিবে ; বোতল শীতল হইলে তগ্ন করিয়া স্বর্ণ সিন্দুর গ্রহণ করিবে এবং বোতলের নিয়স্থস্বর্ণ যথোক্ত নিয়মান্থপারে পুট দিয়া ষধে প্রয়োগ করিবে স্বর্ণ শোধন বিধি পষ্ঠায়, পারদ শোধনবিধি পৃষ্ঠায় গন্ধক শোধনবিধি পৃষ্ঠায় দ্রষ্টব্য

আয়ুর্বেবেদ-শিক্ষা। অভ্রশোধনবিধি

বানুকারহিত কৃষ্ণাত্র অন্রের এক চতুর্থাংশ শালিধান্য একখণ্ড কন্বলে বদ্ধ করিয়া দ্রিন জলমধ্যে রাখিবেঃ পরে অত্র হস্তদ্বারা দু়রূপে মর্দন করিলে কম্বল হুইতে যে অন্রচর্ণ বহির্গত.হইবে, তাহাই গ্রহণ করিবে শান্্রকারগণ উহাঁকেই্ ধান্ঠাদ নামে নির্দেশ করেন, এই অভ্র অগ্থির উত্তাপে ভাজিরা কুলের কলাথে নিক্ষেপ করিবে, অনন্তর হস্তদ্বার! মর্দন পুর্ববক রৌদ্র শুষ্ক করিয়া লইলেই উহা? বিশোধিত হয়|

অভ্রভম্মবিধি |

পূর্বোক্ত (নিয়মে শোধিত ধান্ান্র একদিন আকন্দের ক্ষীরে পেষণ পূর্বক ছোট চাকি্ গ্ঠার প্রস্তত করিয়া রোদ্রে শুষ্ক করিবে। অনন্তর অত্র আকন্দের পাতার দ্বারা বেষ্টিত করিয়া একখান! শরার মধ্যে স্থাপন পূর্বক অন্য শরাদ্বারী রুদ্ধ করিবে এবং শরাদ্বরের মুখ মৃত্তিকা দ্বারা লিপ্ত করিয়া একটি গর্ভমধ্যে স্থাপন পূর্ব্বক বনঘুটিয়ার অপ্বিদ্বারা তীব্রপুট প্রদান করিবে এইব্ূপে অন্তরকে পুনরাণ আকন্দের ক্ষারে পেষণ পূর্বক রৌদ্রে শুষ্ক করিয়! আকন্দের পাতা বেষ্টিত করিবে এবং পূর্ববৎ ছুই খানা শরার মধ্যে রাখিয়া পুট দিবে; এই প্রকার আকন্দের ক্ষীরে সাতবাৰ পুট প্রদান করা কর্তব্য; অনস্তর বটের কুড়ির ক্কাথ প্রস্তুত করিয়া উক্ত কাথ দ্বারা অত্র পেষণ পূর্বক শুষ্ক করিয়া৩ বার তার পুট দিবে, এইরূপে' অন্র তস্ম হয় ; উহা দেখিতে এক্তবর্ণ এবং সমস্ত ওষধে প্ররোজা ; অথবা শোধিত ধান্যাত্র গোমৃত্রে পেষণ করিয়া বে শুদ্চ কারবে, অনপ্তর খান! শরার মধ্যে অবরুদ্ধ কার! পটিযার অঃগুণে পুনঃ পুনঃ পুট প্রদান করিবে, এইরূপ ক্রিয়! দ্বারাও অত্র তস্ম হয়। শত পুটিত অন্র সমস্ত গধধে ব্যবহৃত হয়, সহত্রবার পুট প্রদান করিলে অন্র বিশেষ গুণশালী হর, এই অন্র রসারনে প্রয়োজ্য

লৌহুশোধনবিধি |

লৌহকে চূর্ণ করিয়া অগ্নিতে উত্তপ্ত করত কদলীমূলের জলে নিক্ষেপ করিবে, এইরূপ বর উত্তপ্ত করিয়া বার কদলীমূলের জলে নিক্ষেপ করিলে লৌহ শোধিত হয় এইরূপে সর্দপ্রকার লৌহ শোধন করিবে যাহার! তুবড়ী

পরিভাষাপ্র করণ

প্রভৃতি বাজী প্রস্তুত করে, তাহার অনায়াসে লৌহ্‌ চূর্ণ করিয়া দিতে পারে, কিন্তু এই সুবিধা না থাকিলে, গোমৃত্রে দীর্ঘকাল তিজাইয়া রাখাই কর্তব্য

লৌহভম্মবিধি পূর্বোক্ত নিয়মে শোধিত লৌহচুর্ণ কিছুদিন (৩।৪ মাস ) গোমৃত্রে রাখিবে, অনন্তর গোমূত্রে পেষণ পূর্বক গোলাকার করিয়। রৌদ্ে শুষ্ক করিবে এবং হস্ত প্রমিত গভীর গর্ভমধ্যে বনঘুটিয়া দ্বারা লৌহে তীব্র পুট প্রদান করিবে; এইরূপে গোমৃত্রে পেষণ করিয়া একশত বার পুট দিলে লৌহ ভস্ হয় এবং তাহা উষধে ব্যবহৃত হইয়া থাকে; সহঅবার পুট দিলে সেই লৌহ ঘসায়নে ব্যবহ্ৃত হয়৷

মণ্ডরশোধনবিধি |

লৌহ অগ্থিতে দগ্ধ কৰিলে তাহা হইতে যে মল নির্গত হয়, তাহাকে মণ্ড,$ কহে; শতাধিক বর্ষের মও,র সমধিক গুণবিশিষ্ট ; অশীতি বর্ষের মও্,র মধ্যম ; ষাট বৎসনের মণ্ড,র অধম ? ইহা অপেক্ষা অল্পকালের মণ্ডর বিষসদৃশ ; সুতরাং তাহা অব্যবহাধ্য। সাধারণতঃ যণ্ডর মৃত্তিকাত্যন্তরে জলাশয় ইত্যাদি খনন করিতে অনেক সময়ে পাওয়া যায়, এই মণ্ড,র গ্রহণ করিয়া উত্তমরূপে ধৌত অগ্নিতে দগ্ধ করিয়। গোমৃত্রে নিক্ষেপ করিবে; এইরূপ এবার দগ্ধ করিয়া বার গোযুত্রে নিক্ষেপ করিলে মণ্ড,র বিশোধিত হয়।

মণ্ডুরতস্মবিধি। শোধিত মণ্ড,র চূর্ণ করিয়। গোমৃত্রে মর্দন পৃব্বক বস্ত,লাকার কৰিবে, অনন্তর রৌদ্রে শুষ্ক করিয়! গর্ভমধ্যে বনঘুটিয়। দ্বার] পুনঃ পুনঃ লৌহবৎ পুটপাক করিবে ; এক শত পুট প্রদান করিলে মণ্ড,র সমধিক গুণশালী হয়

বঙ্গ শোধনবিধি

পঞ্মরা১ লৌহপাত্রে গ্কাপন পূর্বক অগ্নির উত্তাপে গলাইয়। চুনের জলে নিক্ষেপ করিয়। ঘণ্টা কাল জাল দিলেই বঙ্গ শোধিত হয়। দ্রবীভূত পন্মরাঙ. চুণের জলে নিক্ষেপ কালে অতি সাবধান হওয়! আবশ্টক, যেহেতু উহার কণা উদ্ধে উখিত হইয়া চক্ষু, সখ কর্ণ প্রভৃতি বিনষ্ট করিতে পারে।

আয়বের-শিক্ষা | বঙ্গতম্মবিধি |

উল্লিখিত নিয়মে শোধিত পদ্মরাঙ লৌহপান্রে স্থাপন পূর্বক অগ্নির উত্তাপে দ্রব করিবে; অনন্তর পদ্মরাঙের সমান শুষ্ক হবিদ্রা উহাতে নিক্ষেপ করিয়া লৌহদও দ্বারা পুনঃ পুনঃ আলোড়ন করিবে, হরিদ্রা ভন্মসাৎ হইলে পদ্মরাঙের তুল্যাংশ যমানী উহাতে প্রদান করিবে এবং পুনঃ পুনঃ আলোড়ন করিতে থাকিবে, যমানী তন্ম হইলে, পদ্সরাঙের সমান জীরা প্রদান করিবে এবং জীরা ভম্ব হইলে পদ্মরাঙ্ের সমান তেঁতুলবৃক্কের শ্ক্ক- ছাল প্রদান করিবে এবং উহা তম্মীভূত হইলে পদ্মরাঙের সমান অশ্বথবৃক্ষের শুফছাল প্রধান করিবে সর্বদা লৌহদপগুদ্বারা আলোড়ন করিবে, এইরূপ ক্রিয়াদ্বার! পল্মরাউ, তম্ম হয়; ইহাকে বঙ্গতন্ম বলে। এই বঙ্গ ওষধে ব্যবহৃত হইয়া থাকে কেহ কেহ কেবলমাত্র শুষ্ক সিদ্ধিপত্র ( তাঙ্গ ) দ্বারা বঙ্গ ত্য করিয়। থাকেন। বঙ্গভন্মকে ছুগ্ধ দ্বারা ছানিয়া গোলাকার রৌড্রে শুক করিয়া ঘুটিয়ার আগুণে একটি পুট দিলে উহা! আরও উৎকৃষ্ট হয়।

সীসকশোধনবিধি " সীসকের শোধন বিধি বঙ্গের ন্যায়